মা (পর্ব-২)

  • 07 November, 2022
  • 0 Comment(s)
  • 69 view(s)
  • লিখেছেন : চন্দন আঢ্য
আইনগত গর্ভপাতের বিরুদ্ধে আহূত বাস্তব কারণগুলির কোনো ওজনই নেই। নৈতিক যুক্তির দিক দিয়ে সেগুলি পুরোনো ক্যাথলিক তর্ক-বিতর্কের মধ্যেই নিজেকে নামিয়ে এনেছে। অর্থাৎ, ভ্রূণের একটি আত্মা রয়েছে। ব্যাপ্টিজিমের আগে সেই আত্মাকে শেষ করে দেওয়ার অর্থ তাকে স্বর্গের প্রবেশাধিকার থেকে বঞ্চিত করা। এটাও আবার লক্ষ করার বিষয় যে, গির্জাও কখনো-সখনো প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষদের হত্যার অনুমোদন দেয়। যেমন যুদ্ধে অথবা মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্তদের বিষয়ে। ভ্রূণের জন্য চার্চ অবশ্য একটি আপসহীন মানবিকতা রক্ষা করে চলেছে।

আইনগত গর্ভপাতের বিরুদ্ধে আহূত বাস্তব কারণগুলির কোনো ওজনই নেই। নৈতিক যুক্তির দিক দিয়ে সেগুলি পুরোনো ক্যাথলিক তর্ক-বিতর্কের মধ্যেই নিজেকে নামিয়ে এনেছে। অর্থাৎ, ভ্রূণের একটি আত্মা রয়েছে। ব্যাপ্টিজিমের আগে সেই আত্মাকে শেষ করে দেওয়ার অর্থ তাকে স্বর্গের প্রবেশাধিকার থেকে বঞ্চিত করা। এটাও আবার লক্ষ করার বিষয় যে, গির্জাও কখনো-সখনো প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষদের হত্যার অনুমোদন দেয়। যেমন যুদ্ধে অথবা মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্তদের বিষয়ে। ভ্রূণের জন্য চার্চ অবশ্য একটি আপসহীন মানবিকতা রক্ষা করে চলেছে। ব্যাপ্টিজিমের দ্বারা কিন্তু ভ্রূণ রক্ষা পায় না। কাফেরদের বিরুদ্ধে পবিত্র যুদ্ধের সময় সেই কাফেরদের কিন্তু ব্যাপ্টিজিম করানো হয়নি। বরং গণহত্যাকে প্রবলভাবে উৎসাহিত করা হয়েছিল। ইনকুইজিশনের যাঁরা শিকার--প্রায় নিঃসন্দেহে বলা চলে যে তাঁরা সকলেই অনুগ্রহের অবস্থায় ছিলেন না। এমনকি আজ যে-সমস্ত অপরাধীদের গিলোটিন করা হচ্ছে অথবা যাঁরা যুদ্ধক্ষেত্রে নিহত--তাঁরাও অনুগ্রহ পাওয়ার অবস্থায় নেই। এই সমস্ত ক্ষেত্রেই অনুগ্রহের বিষয়টি চার্চ ছেড়ে দিয়েছিল ঈশ্বরের হাতে। চার্চ স্বীকার করে যে, মানুষ ঈশ্বরের হাতে কেবল একটি যন্ত্র এবং আত্মার পরিত্রাণ বা মুক্তি নির্ভর করে আত্মা ও ঈশ্বরের ওপর। তাহলে ঈশ্বরকে কেন ভ্রূণাবস্থিত আত্মাকে স্বর্গে গ্রহণ করা থেকে বিরত রাখা হবে? এখন একটি চার্চ কাউন্সিল যদি বিষয়টিকে অনুমোদন করে, তাহলে বিধর্মীদের পবিত্র হত্যাকাণ্ডের সেই গৌরবময় যুগের চেয়ে বেশি প্রতিবাদ ঈশ্বর করবেন না। আসল সত্য হল : নৈতিকতার সঙ্গে বিন্দুমাত্র কোনো সম্পর্ক নেই এমন পুরোনো একরোখা ঐতিহ্যের বিরুদ্ধে এখানে আমরা ঠোক্কর খাই। ইতিমধ্যেই আমি যে পুরুষালি ধর্ষকামিতা নিয়ে আলোচনা করেছি সেই বিষয়টিকেও বিবেচনার মধ্যে রাখতে হবে। ১৯৪৩ সালে পেত্যাঁ-কে ডাক্তার রায় যে-বইটি উৎসর্গ করেছিলেন, সেই বই হল এই বিষয়ের একটি চিত্তাকর্ষক উদাহরণ। খারাপ বিশ্বাসের একটি বড়ো উদাহরণ হল এই বই। পিতৃতান্ত্রিক মানসিকতা থেকেই বইটিতে জোর দেওয়া হয়েছিল গর্ভপাতের বিপদের ওপর। কিন্তু সিজারিয়ান অপারেশনের চেয়ে বেশি স্বাস্থ্যসম্মত আর কিছু আছে বলেই তাঁর মনে হয় না। গর্ভপাতকে তিনি সামান্য অপকর্ম নয়, বরং অপরাধ হিসাবেই গণ্য করতে চান। তাঁর ইচ্ছা যে, এমনকি থেরাপিউটিক আকারের অধীনেও গর্ভপাত নিষিদ্ধ হোক, অর্থাৎ, যখন গর্ভবতী মায়ের জীবন বা স্বাস্থ্য বিপন্ন হয়। তিনি ঘোষণা করেন যে, জীবন বা অন্যটির মধ্যে কোনো একটিকে বেছে নেওয়া অনৈতিক। আর এই যুক্তির বলে বলীয়ান হয়ে তিনি মায়ের জীবন বলি দেওয়ার পরামর্শ দেন। তিনি ঘোষণা করেন : ভ্রূণ মায়ের অধিকারগত নয়, সেটি একটি স্বাধীন সত্তা। যাই হোক, যখন এই একইরকম ‘সুচিন্তিত’ ডাক্তাররা মাতৃত্বের উচ্চকিত প্রশংসা করেন, তখন তাঁরা নিশ্চিত করেন যে, ভ্রূণটি মাতৃ-দেহেরই অংশ। মায়ের খাদ্যে পুষ্ট তা কোনো পরজীবী নয়। নারীদের মুক্তি দিতে পারে--এমন সব কিছু প্রত্যাখ্যান করার জন্য কিছু পুরুষের এই উন্মাদনা দেখায় যে নারীবিরোধিতা এখনও কতটা জীবন্ত।

অধিকন্তু, যে আইনটি বিপুল সংখ্যক তরুণীর মৃত্যু, বন্ধ্যাত্ব এবং অসুস্থতার জন্য দায়ী, সেই আইনটিই কিন্তু জন্মহার-বৃদ্ধি নিশ্চিত করার ব্যাপারে সম্পূর্ণরূপে অক্ষম। আইনি গর্ভপাতের সমর্থক এবং শত্রুরা যে বিষয়ে একমত তা হল--দমনমূলক আইনের আমূল ব্যর্থতা। অধ্যাপক ডলেরিস, বালথাজার্ড এবং ল্যাকাসাগনের মতে, ১৯৩৩ সালের আশেপাশে ফ্রান্সে গর্ভপাতের সংখ্যা ছিল প্রতি বছর ৫০০,০০০। ডাক্তার রায়ের উদ্ধৃতি অনুসারে ১৯৩৮ সালে খাড়া করা একটি পরিসংখ্যান অনুযায়ী সেই সংখ্যা দশ লক্ষ। ১৯৪১ সালে বর্দো-র ডাক্তার ওব্যর্‌ত্যাঁ-র মতে, সংখ্যাটি ছিল ৮০০,০০০ থেকে দশ লক্ষের মধ্যে। শেষ সংখ্যাটিই মনে হয় সত্যের সবচেয়ে কাছাকাছি। ১৯৪৮ সালের মার্চ মাসে ‘কোম্‌বা’-তে লেখা একটি নিবন্ধে ডাক্তার দেসপ্লা লিখেছেন :

গর্ভপাত আমাদের রীতি-প্রথার মধ্যে ঢুকে গেছে ... দমনমূলক আইন কার্যত ব্যর্থ ... ১৯৪৩ সালে স্যেন অঞ্চলে ১৩০০ টি তদন্তের মধ্যে ৭৫০ টিতে অভিযুক্তের মধ্যে ৩৬০ জন মহিলাকে গ্রেফতার করা হয়েছে, ৫১৩ জন দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন এক বছরের কম থেকে পাঁচ বছরের বেশি সময় পর্যন্ত যা সেই অঞ্চলের আনুমানিক ১৫,০০০ গর্ভপাতের তুলনায় কম। ভূখণ্ডের ওপর ১০,০০০ উদাহরণ রয়েছে।

তিনি আরও যোগ করেছেন :

তথাকথিত অপরাধমূলক গর্ভপাত সমাজের সমস্ত স্তরে ততটাই পরিচিত যতটা আমাদের এই কপট সমাজের দ্বারা গর্ভনিরোধক নীতিগুলি গৃহীত। গর্ভপাত করানো মহিলাদের দুই-তৃতীয়াংশই হলেন বিবাহিত মহিলা… আমরা মোটামুটি অনুমান করতে পারি যে ফ্রান্সে যত সংখ্যক গর্ভপাত হয়, তত সংখ্যক শিশুরই জন্ম হয়।

এর কারণ, গর্ভপাত করানোর অপারেশনগুলি প্রায়শই বিপর্যয়কর পরিস্থিতিতে সম্পন্ন হয়। অনেক গর্ভপাতই শেষ হয় যে-সব মহিলার গর্ভপাত করানো হচ্ছে তাঁদের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে।

প্রত্যেক সপ্তাহে প্যারিসের অ্যাঁন্সটিট্যু মেদিকো-লেগাল-এ দুটি করে মৃতদেহ আসে গর্ভপাত করানো মহিলাদের মধ্য থেকে। অনেকেরই গর্ভপাতের ফলে স্থায়ী অসুস্থতা দেখা দেয়।

লেখক : অধ্যাপক, প্রাবন্ধিক

ছবি : সংগৃহীত

0 Comments

Post Comment